সুশৃঙ্খল ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে নিসআ’র মানববন্ধন

Header

রিপোর্টিং : সুশৃঙ্খল ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে মানববন্ধন করে নিরাপদ সড়ক আন্দোলন (নিসআ)। রাজধানীর রামপুরা ব্রিজে শুক্রবার (২১ অক্টোবর) বিকেল ৪ টায় এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধন শেষে শিক্ষার্থীরা রামপুরা ব্রিজ সংলগ্ন পুলিশবক্সের ট্রাফিক সার্জেন্টকে সাথে নিয়ে প্রতীকীরূপে কয়েকটি বাসের ওয়েবিল সিস্টেম, চালকের লাইসেন্স ও গাড়ির ফিটনেস চেক করে তারা। এতে ১৫ এর অধিক ফিটনেসবিহীন বাস ও লাইসেন্সবিহীন চালকে চিহ্নিত করা হয়। চিহ্নিত সবগুলো বাসেই ওয়েবিল সিস্টেমের মাধ্যমে নির্ধারিত ভাড়ার বাড়তি ভাড়া নেওয়া হচ্ছিলো। যার মধ্যে রাইদা পরিবহন, আলিফ পরিবহন, আসমানী পরিবহন ছাড়াও আরও অসংখ্য গাড়ি ছিল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, কবি নজরুল ইসলাম কলেজ, তিতুমীর কলেজসহ দেশের বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীরা এই কার্যক্রমে অংশ নেন।

 

 

ads

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও নিসআ এর যুগ্ম-আহ্বায়ক শাহীদুল ইসলাম আপন বলেন, বেসরকারি সংস্থা সমূহের তথ্যমতে, ২০১৮ সালে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান ৭২২১ জন, এত বড় ছাত্র আন্দোলনের ৩ বছর পরও গেল বছর ২০২১ এ এই নিহতের সংখ্যা ছিলো ৭৮০৯জন! যা প্রমাণ করে সড়কব্যবস্থা চরমভাবে বিশৃঙ্খল।

নিরাপদ সড়ক আন্দোলন (নিসআ) এর আরেক যুগ্ম-আহ্বায়ক ইনজামুল হক বলেন, সরকার ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসন সড়কে শৃঙ্খলা আনতে ব্যর্থ হয়েছে। দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা না নিলে দেশের সড়ক ব্যবস্থা অচিরেই সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

এছাড়াও মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন স্লোগান ও ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে ২৯ জুলাইকে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালনের দাবি জানায়। তাদের মতে, ২৯শে জুলাই, ২০১৮ সালের প্রেক্ষিতেই দেশে ও সারাবিশ্বে নিরাপদ সড়কের দাবিতে বৃহত্তম আন্দোলন ঘটে, যা দেশের সড়কব্যবস্থায় সবচেয়ে বেশি তাৎপর্যপূর্ণ। এজন্য শিক্ষার্থীরা ২৯শে জুলাইকে নিরাপদ সড়ক দিবস হিসেবে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি করেন।

ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *