সাজাপ্রাপ্ত ইউপি সদস্য ও তার স্ত্রী দাপটের সাথে সকল দপ্তরিক কাজ করে যাচ্ছে!

Header

রিপোর্টিং,বিশেষ প্রতিনিধি : দীর্ঘদিন চাপা থাকার পর মামলাটি আবারো নাড়াচাড়া দিয়া উঠেছে। দিঘলিয়া উপজেলার সেনহাটি ইউনিয়ন এর( হাজিগ্রাম) ৩ নং ওয়ার্ড এলাকার বর্তমান ইউপি সদস্য আকবর আলী সরদার ও স্ত্রী মোছাঃ সাবিনা বেগম, মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি বলে জানা যায়।

উক্ত মাদক মামলার বিবরণে জানা যায়,১৯৯০ সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের  ১৯(১) ধারার টেবিলের ৯(ক) ধারায় দোষী সাব্যস্ত হন ও বিজ্ঞ আদালতে সাজা দেওয়া হয়। মামালা টি দীর্ঘদিন চাপা থাকলেও  চলতি বছরে পুনরায় নাড়াচাড়া দিয়ে উঠেছে।

ads

মামলার বিবরণে আরো উল্লেখ রয়েছে  যে, হাজীগ্রাম ৩ নং ওয়ার্ড এলাকার বাসিন্দা মৃতঃ নওসের আলী সরদার এর পুএ  আকবর আলী সরদার ও তার  স্ত্রী মোছাঃ সাবিনা বেগম মাদক মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি, ২০ শে অক্টোবর ২০২২ উক্ত মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামি  আকবর সরদার  হাজির না হওয়ায় আলামত সহ মামলা টি ভারপ্রাপ্ত ম্যাজিস্ট্রেট খুলনা সদর কোর্ট  খুলনা এর বরাবর  প্রেরণ করেন। মামলা  নং- ৮/১৭ বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট খুলনা, রওনক জাহান এর স্বাক্ষরিত  মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১২ পিস ইয়াবা ট্যবলেট ও ৫ কেজির কম গাজা হওয়ায়, ১৯৯০ এর ১৯(১) অনুযায়ী ১০ মাসের  বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ২ হাজার টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।

তাতে আরো উল্লেখ করা হয়,  আসামি  আকবর সরদার কোর্টে হাজির না হওয়ায়  গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।  অপর দিকে  দিঘলিয়ার হাজীগ্রাম ৩ নং ওয়ার্ড এলাকাবাসী সুএে জানা যায়,  কিছু  দিন আগে  আকবর সরদার এর স্ত্রী  মোছাঃ সাবিনা  জেল হাজতে বেশ কিছুদিন ছিলেন। একজন ইউপি সদস্য ও তার স্ত্রী মাদক মামলার সাথে সম্পৃক্ত থাকায় উক্ত এলাকায় বেশ চাঞ্চলের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকা বাসীর দাবি- প্রশাসন সহ-সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দায়িত্বে থাকা সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ , প্রকৃত সত্য ঘটনা উদঘাটন করে আইনের সদ্ব্যবহার করা হোক।

ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *