সময় পেলেই স্কুলে ছুটে যান ইউএনও; ক্লাস নেন শিক্ষার্থীদের

Header

রিপোর্টিং,সাপাহার(নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ সম্প্রতি করোনার ধকল কাটিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ। গেলো করোনার কারণে স্থবির হয়ে পড়েছিলো জন জীবন। এর প্রভাব পড়েছে শিক্ষা ক্ষেত্রেও। শিক্ষা ক্ষেত্রে সব চেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ছে প্রাথমিক পর্যায়ে ক্ষুদে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। শিক্ষা জীবন শুরুতে বড় ধাক্কা পেতে হয়েছে তাদের। বর্তমানে সবকিছু স্বাভাবিক হতে শুরু করলেও শিক্ষা ব্যাবস্থা কিছুটা পিছিয়ে গেছে। তাই শিক্ষার প্রতি গুরত্ব দিচ্ছে শিক্ষক অভিভাবক সহ সংশ্লিষ্ট সকলেই। এরই লক্ষে শিক্ষা ব্যাবস্থা ত্বরান্বিত করতে এবং কোমলমতি ক্ষুদ্র শিক্ষার্থীদের এগিয়ে নিতে নিরলস কাজ যাচ্ছেন নওগাঁর সাপাহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুন।

জানা যায়, সম্প্রতি প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় জেলা পর্যায়ে “প্রাথমিক শিক্ষা পদক-২০২২” পেয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল্যাহ আল মামুন। তার উপর সরকারি অর্পিত দায়িত্ব যথাযথ পালনের পাশাপাশি সময় পেলেই ছুটে যান উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া এগিয়ে নিতে নিজেই ক্লাস নেওয়া শুরু করেন তিনি।

এরই ধারাবাহিতায় বুধবার (১২ অক্টোবর) বেলা ১২ টার দিকে উপজেলার জয়পুর রাজ্যধর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় যান ইউএনও আব্দুল্যাহ আল মামুন। ওই স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণীর ধর্ম শিক্ষা ও পঞ্চম শ্রেণীর গণিত ক্লাস নেন তিনি। এসময় উপজেলা শিক্ষা অফিসার তৃষিত কুমার চৌধুরী, উপজেলা জনস্বাস্থ্য উপ-সহকারী প্রকৌশলী সন্তোষ কুমার, জয়পুর রাজ্যধর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

ads

জয়পুর রাজ্যধর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণীর শিক্ষার্থী রাফি ও ফাহমিদা বলেন, আজ ইউএনও স্যার আমাদের গণিত ক্লাস নিয়েছে। গণিত বই হতে স্যার আমাদের বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। আমরা স্যারের প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিতে পেয়ে খুবই খুশি।

জয়পুর রাজ্যধর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম বলেন, ইউএনও স্যার সময় পেলেই মাঝে মধ্যে হঠাৎ করে স্কুলে ছুটে আসেন। বিভিন্ন ক্লাসে গিয়ে ক্লাস নেন। শিক্ষা ব্যাবস্থা বিষয়ক বিভিন্ন পরামর্শ দেন। যা আমাদের জন্য অবশ্যই অনেক ভালো লাগার বিষয়। ইউএনও স্যার আজ বুধবার আমাদের স্কুলে এসে দ্বিতীয় শ্রেণীর ধর্ম শিক্ষা ও পঞ্চম শ্রেণীর গণিত ক্লাস করান। এতে আমরা খুবই আনন্দিত।

ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *