কয়রায় জমিজমা বিরুদ্ধের জের ধরে উভাই পক্ষের ৯জন আহত হন

Header

রিপোর্টিং,কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ ভোর রাতে বিরোধপূর্ণ জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে খুলনার কয়রা উপজেলার আমাদী ইউনিয়নের হরিনগর পাবলিক স্কুল মোড়ের পার্শ্বে দু-পক্ষের সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৯ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয় ও প্রতিবেশী সুত্রে জানা যায়, ১৪ই অক্টোবর (শুক্রবার) ভোর ৫ঃ০০ টার সময় হরিনগর গ্রামের মোঃ ইয়াছিন গাজীর বসবাস কৃত জমির ওপর ফজরের আযানের কিছুক্ষণ পূর্বে একই গ্রামের মান্দার গাজীর পুত্ররা দলবল নিয়ে জায়গা দখল করার জন্য কনক্রিটের তৈরী খুটি, ঘরের চাল ও সরাঞ্জাম নিয়ে ঘর ওঠাতে থাকলে ইয়াছিন গাজীর পরিবারের লোকজন বাঁধা দিলে সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে ৬ জন গুরুতর আহত হন।

আহত মোঃ ছবেদ আলীর গাজীর স্ত্রী আঞ্জুয়ারা খাতুন(৬৭) এবং তার পুত্র মোঃ ইয়াসিন গাজী(৩৫), মোঃ আসলাম গাজী(৪০), মোঃ সামাদ গাজী (৪৭), মৃত নেপাল সানার পুত্র মোহর আলী সানা(৬০), স্বপ্না খাতুন(৩০) পারভীন ও ফতেমা খাতুন ও প্রতিপক্ষ সাইফুল্লাহ, ইয়াকুব আলী কে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কয়রা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ads

ভুক্তভোগী ইয়াছিন আলী গাজী জানান, আমরা প্রতিদিনের ন্যায় রাতে ঘুমিয়েছিলাম হঠাৎ ফজরের আজানের আধা ঘন্টা আগে স্থানীয় মান্দার গাজীর পুত্র সাইফুল, ইদ্রিস, সুকুর, আব্দুল্লাহ সরদার সহ ১৫/২০ জন আমার দীর্ঘ পঞ্চাশ বছরের বসতবাড়ির উপর ঘর তৈরি করার জন্য খুঁটি ও ঘরের চাল তৈরি করে নিয়ে আসে। এ সময় আমি সহ আমার পরিবারের সদস্যরা তাদের বাধা দিলে তারা আমাদেরকে লাঠি শোডা, দা, কুড়াল দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে আমাদেরকে রক্তাক্ত করে ফলে এবং আমাদের জায়গার উপর ঘর তৈরি করে ও আমাদের বিচুলির গাদায় আগুন জ্বালিয়ে ছায় করে দেয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আবদুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জায়গা জমির জের ধরে দু-পক্ষের মধ্যে ভোররাতে মারামারির ঘটনাটি ঘটেছে। আমি বিষয়টি জানতে পারার পর ঘটনা স্থলে গেলে স্থানীয় প্রশাসনের উপস্থিততে তাদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করি, উন্নত চিকিৎসার জন্য কয়েক জনকে খুলনাতে নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে প্রতিপক্ষ মান্দার গং দের সাথে বিভিন্নভাবে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
উল্লেখ্য যে, কয়রা উপজেলা ১২৯ নং হাতিয়ার ডাঙ্গা মৌজার অবস্থিত এসএ ১নং খতিয়ানে ৫০১ নং দাগের মধ্যে বিরোধপূর্ণ ৩৩ শতক জমি নিয়ে কিছুদিন পূর্বেও মারামারি ঘটনা ঘটেছিল এ নিয়ে ভুক্তভোগী ইয়াছিন আলী গাজী বাদী হয়ে মান্দার গাজী সহ ১৩ জনকে আসামী করে বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত, কয়রাতে মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নম্বর সি,আর ১৯৮/২২। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কয়রা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে ভুক্তভোগীরা জানান।

ads

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *